বৈষম্যমূলক মূল্য বৃদ্ধির চক্রান্তের প্রতিবাদ বিড়ি মালিকদের

বৈষম্যমূলক মূল্য বৃদ্ধির চক্রান্তের প্রতিবাদ বিড়ি মালিকদের

বিড়ি শিল্প নিয়ে আগামী বাজেটে ষড়যন্ত্রমূলক মূল্য বৃদ্ধি না করার আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ বিড়ি শিল্প মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ। শনিবার রাজধানী ঢাকায় বাংলাদেশ বিড়ি শিল্প মালিক সমিতির অস্থায়ী কার্যালয়ে আয়োজিত এক সভায় এ আহ্বান জানানো হয়। সভায় এনবিআরের প্রাক বাজেট আলোচনায় সিগারেটের দাম নামমাত্র মূল্য বৃদ্ধি করে বিড়ির উপর তিনগুণ মূল্য বাড়িয়ে ৩৫ টাকা করার প্রস্তাবের তীব্র প্রতিবাদ করেছেন মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ। এসময় তারা বিড়ি শিল্পকে ধ্বংস করার ষড়যন্ত্র বন্ধ না করলে কঠোর আন্দোলনের হুমকি দিয়েছেন ।

বাংলাদেশ বিড়ি শিল্প মালিক সমিতির সভাপতি শ্রী বিজয় কৃষ্ণ দে এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন বাংলাদেশ বিড়ি শিল্প মালিক সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি ও রংপুর বিড়ি মালিক সমিতির সভাপতি আলহাজ¦ মোঃ মজিবর রহমান।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিড়ি শিল্প মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ডা. শেখ মহিউদ্দিন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও রংপুর কাউনিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম মায়া, বিড়ি ফ্যাক্টরি মালিক মোস্তফা কামাল, ফারুক হোসেন, নুরুল ইসলাম, বিল্লাল হাজী, মোঃ ফজলুল হক, আরিফ হুসাইন, প্রদীপ পাল, মোঃ রফিক উদ্দীন, রাশেদুল ইসলাম, ঢালী মোঃ কামাল, আনোয়ারুল আলম, মোঃ হাকিম, মোঃ নাজমুল হকসহ শতাধিক বিড়ি শিল্প মালিক সমিতির সদস্য।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি এম.কে বাঙ্গালী, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, কার্যকরী সভাপতি আমিন উদ্দিন বিএসসি, যুগ্ম-সম্পাদক মোঃ হারিক হোসেন প্রমুখ।
[
সভাপতির বক্তব্যে শ্রী বিজয় কৃষ্ণ দে বলেন,“বিড়ি শিল্প ধ্বংস করতে বিড়ির মূল্য তিনগুণ বৃদ্ধি করার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। সিগারেটকে একচেটিয়া ব্যবসা করার সুযোগ করা হচ্ছে। বিড়ি শিল্প ধ্বংস হলে দেশের ২৫ লাখ শ্রমিক বেকার হয়ে পড়বে। বিড়ি শিল্পের উপর কর তুলে নিয়ে ভারতের ন্যায় বিড়িকে কুঠির শিল্প হিসেবে ঘোষণার দাবি জানান তিনি।” 

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, “এনবিআরের প্রাক বাজেট আলোচনায় সিগারেটের উপর নামমাত্র মূল্য বৃদ্ধি করে বিড়ির উপর তিনগুণ দাম বৃদ্ধির ষড়যন্ত্রমূলক মতামত পেশ করা হয়েছে। বিড়ি শিল্পের উপর বিমাতা সুলভ প্রস্তাব করা হয়েছে। আমরা এর তীব্র প্রতিবাদ করছি। যদি বিড়ির মূল্য বৃদ্ধি করা হয় তাহলে নি¤œস্তরের সিগারেট প্রতি শলাকা কমপক্ষে ২০টাকা নির্ধারণ করতে হবে। বক্তারা আরো বলেন, শ্রমিক বান্ধব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কখনো বিড়ি শিল্পের উপর কোন বৈষম্য হতে দিবেন না। প্রধানমন্ত্রীর সুনজর আমাদের উপর ছিল, আছে এবং থাকবে ।”

ad