সিঙ্গেল ডিজিট সুদের ব্যাপারে কঠোর অবস্থানের ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর

সিঙ্গেল ডিজিট সুদের ব্যাপারে কঠোর অবস্থানের ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর

সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী

বাজেট পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে সিঙ্গেল ডিজিট সুদে ঋণ দেওয়ার ব্যাপারে ব্যাংকগুলোকে যে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে তা মেনে চলতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘আমরা সবসময় চেষ্টা করেছি যাতে সুদটা সিঙ্গেল ডিজিটে থাকে। এ জন্য ব্যাংকগুলোকে সুবিধাও দিয়েছি। কিন্তু অনেক বেসরকারি ব্যাংক সেটা মানেনি। এবার বাজেটে নির্দেশনা দেওয়া আছে—এ ব্যাপারে কঠোর অবস্থানে যাওয়া হবে।’

শুক্রবার  বেলা ৩টার দিকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাজেট পরবর্তী সংবাদ সম্মেলন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সংবাদ সম্মেলনে  সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ব্যাংকগুলোকে নিয়ম মেনে চলতে হবে। ঋণের সুদ যেন ডাবল ডিজিটে না হয়। তাহলে আমাদের বিনিয়োগ বাড়বে। বেশি আর চক্রবৃদ্ধি আকারে সুদ হতে থাকলে মানুষ আর ব্যবসা করতে পারবে না। এদিকটাতে আমরা বিশেষভাবে ব্যবস্থা নিচ্ছি। অনেক আইন আমরা সংশোধন করবো; সেই ব্যবস্থা নিচ্ছি।’
অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। বৃহস্পতিবার  বাজেট উপস্থাপনের জন্য হাসপাতাল থেকে সরাসরি তিনি জাতীয় সংসদে আসেন। বাজেট উপস্থাপনের সময়ও তিনি অসুস্থ ছিলেন। অসুস্থতার কারণে পরে আর তিনি বাজেট উপস্থাপন করতে পারেননি। এরপর অর্থমন্ত্রীর পক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংসদে ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার বাজেট উপস্থাপন করেন। বাজেটে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে তিন লাখ ৭৭ হাজার ৮১০ কোটি টাকা। এরমধ্যে এনবিআর সংগ্রহ করবে তিন লাখ ২৫ হাজার ৬০০ কোটি টাকা, যা মোট বাজেটের ৬২ দশমিক ২ শতাংশ। অন্যদিকে প্রস্তাবিত বাজেটে অনুদান ছাড়া ঘাটতি ধরা হয়েছে এক লাখ ৪৫ হাজার ৩৮০ কোটি টাকা।

ad